ফ্লাডলাইট

বাঁহাতি ব্যাটসম্যান ওয়ার্নার ডানহাতি ব্যাটিং-এ এত সাবলীল কিভাবে?

ডেভিড ওয়ার্নার নিয়ন আলোয় neonaloy

“ইম্প্রোভাইজেশন” কথাটা ক্রিকেটে নতুন কিছু নয়, যখন সোজা আঙুলে ঘি উঠতে চায়না তখন আঙুল সামান্য বাঁকাতেই হয়! যখন ফিল্ডিং সাইড কোন ব্যাটসম্যানকে ফিল্ডিং পজিশন এবং আঁটসাঁট বোলিং দিয়ে বেঁধে ফেলে তখন এই ইম্প্রোভাইজেশন বা ইনোভেশনের মাধ্যমে রান বের করতে হয় মডার্ণ ডে ক্রিকেটে।

“সুইচ হিট” সেইরকম একটা ব্যাপার। এটা নিয়ে নিশ্চয় বিস্তারিত বলতে হবেনা! বাঁহাতি ব্যাটসম্যান হিসেবে ডেভিড ওয়ার্নারকে অনেকবার সুইচ হিট করতে দেখেছি আগে। পাওয়ার শটে রিভার্স সুইপ খেলতে বেশ সাহায্য করে এই সুইচ হিট।

কিন্তু সেদিন যা দেখলাম, সেটা বিশ্বাস করতে খানিকক্ষণ সময় লেগেছে বটে আমার! ডানহাতি ওয়ার্নার? সিরিয়াসলি?

রীতিমত গার্ড নিয়ে ডানহাতি ব্যাটসম্যান হয়ে গিয়েছিলেন ওয়ার্নার! ইনিংসের ৩২ বল বাঁহাতি হিসেবে খেলার পর ক্রিস গেইলের অফস্পিনের বিপক্ষে ডানহাতি হয়ে যান ওয়ার্নার। ১৯ তম ওভারের ঘটনা সিলেটের ইনিংসের, ওভারের দ্বিতীয় এবং তৃতীয় বলে কোন রান নিতে না পারা ওয়ার্নার চতুর্থ বলে সবাইকে অবাক করে ডানহাতি হয়ে গেলেন। হয়তো অফস্পিনটাকে সহজ বল বানিয়ে নেয়ার জন্য!

৬,৪,৪- ডানহাতি ওয়ার্নার ৩ বলে করেছেন ১৪ রান। গেইলের মাথার উপর দিয়ে স্ট্রেইট ছয়, তারপর প্যাডেল সুইপ করে স্কয়ার লেগ দিয়ে চার এবং সবশেষে “রিভার্স সুইপ” করে ডানহাতি ওয়ার্নারের চার!

ওয়ার্নারের এই ব্যাটিং অংশ যারা দেখেছেন তারা হয়তো একমত হবেন আমার সাথে, ওয়ার্নার খুব ভালো করেই ডানহাতি ব্যাটিং পারেন। তার গার্ড নেয়া, প্যাডেল সুইপ করা, রিভার্স সুইপ করা দেখে একথা বলাই যায়।

ইতিহাস কি বলে?

ডেভিড ওয়ার্নার মূলত ডানহাতি, জন্মগত বাঁহাতি নন। ছোটবেলা থেকেই দুই হাতে ব্যাট করতে পারতেন তিনি, তবে বাঁহাতি ব্যাটসম্যান হিসেবে ক্রিকেট ক্যারিয়ার গড়ে তুলেন।

১৩ বছর বয়সে স্কুল ক্রিকেটের কোচ ওয়ার্নারকে ডানহাতি ব্যাটসম্যান হবার পরামর্শ দিয়েছিলেন কারন বাঁহাতি ব্যাটসম্যান হিসেবে ওয়ার্নার বাতাসে বেশি শটস খেলেন ফলে ক্যাচ আউটের সম্ভাবনা বেশি থাকে। তখন অল্পকিছু সময় ডানহাতে ব্যাটিং অনুশীলন করেছিলেন। তবে ডানহাতি হিসেবে এক মৌসুম খেলার পর মায়ের পরামর্শে পুনরায় বাহাতি ব্যাটিং শুরু করেন তিনি। ছেলেকে ডানহাতি হিসেবে ঠিক মনে ধরেনি ওয়ার্নারের মা’র!

এই কারণে ক্রিকেট বিশ্বে যে কয়জন ব্যাটসম্যান সুইচ হিট করতে “ওস্তাদ” তাদের ভেতর ডেভিড ওয়ার্নার একজন।

ডেভিড ওয়ার্নার নিয়ন আলোয় neonaloy

তবে ওয়ার্নারের “সুইচ হিট” অনেক সময় তর্কবিতর্কের কারণ হয়েছে অতীতে।

২০১০ সালে উইন্ডিজের বিপক্ষে একটি টি-টুয়েন্টি ম্যাচে অনফিল্ড আম্পায়ার ব্রুস অক্সেনফোর্ড এবং রুড টকার ওয়ার্নারকে বারবার “সুইচ হিট” করতে নিষেধ করেন। যদিও ক্রিকেটের কোন আইনে সুইচ হিট করতে নিষেধ নেই তবুও দুই আম্পায়ার SPIRIT OF CRICKET এর কথা বলেন তখন, বারবার স্ট্যান্স পাল্টে ডানহাতি হয়ে শটস খেলার ফলে বোলারের ফিল্ডিং সাজাতে সমস্যা হয় বলে জানানো হয় তাকে।

জবাবে ওয়ার্নার বলেছিলেন বোলার যখন ওভার অথবা রাউন্ড দ্যা উইকেট বোলিং করতে পারে তখন সে কেন ব্যাটিং করতে পারবেনা?

তবে ওয়ার্নার ২০১৫ সাল থেকে নেটে ডানহাতি ব্যাটিং নিয়মিত অনুশীলন করা শুরু করেন, মূলত ২০১৬ সালে শ্রীলংকা সফরে যেয়ে স্পিনারদের যাতে ঠিকভাবে রিভার্স সুইপ করতে পারেন এশিয়ান কন্ডিশনে সেই চিন্তা থেকেই ওই অনুশীলন।

যার কারণে ২০১৫ সালের পর থেকে সুইচ হিটে “ডানহাতি” হয়ে সাফল্যের সাথে শটস খেলেছেন প্রচুর। তবে এবারের বিপিএল এর সাথে পার্থক্য হচ্ছে সুইচ হিটে তিনি বাহাতি হিসেবেই গার্ড/স্ট্যান্স নিয়ে থাকেন তবে বল ডেলিভারির পর ডানহাতি হয়ে যান। আইপিএলে এমন অনেক শট আছে তার।

তবে এবার যা করছেন সেটা ইম্প্রোভাইজেশন বা ইনোভেশন না, সরাসরি ব্যাটিং স্টাইল বদলানো। স্বাভাবিক ডানহাতি ব্যাটিং, অফ স্ট্যাম্পে গার্ড নিয়ে। আমার ধারনা এবারই প্রথম সরাসরি ডানহাতি ওয়ার্নারকে দেখলাম আমরা, সাক্ষী হয়ে থাকলো বিপিএল।

আরো পড়ুন- রবি ফ্রাইলিংকঃ “উপেক্ষিত” একজন হার-না-মানা ক্রিকেটারের গল্প…

ওয়ার্নার আগে থেকেই ডানহাতি ওকেশনাল লেগ স্পিনার, দরকারে মিডিয়াম পেস বলটাও করতে পারেন। ডানহাত, বাঁহাত দুইভাবেই ব্যাট করতে পারেন, যাদের দুই হাত সমানসমান চলে তাদের বলা হয় “সব্যসাচী”, সুতরাং ডেভিড ওয়ার্নারকে সব্যসাচী ক্রিকেটার বলাই যায়!

ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার আপলোড করা এক ভিডিওতে ওয়ার্নারের ডানহাতে ছক্কা মারার অনুশীলন পাবেন খুঁজলে, চাইলে দেখতে পারেন, পারফেক্ট টাইমিং সব!! আজকে কিন্তু গেইলকে ছক্কাই মেরেছেন প্রথম ডানহাতি শটে!

২০১৫ সালে আইপিএলের এক ম্যাচে বেঙ্গালুরুর বিপক্ষে সুইচ হিটে চার মেরে ফিফটি করেছিলেন “আংশিক ডানহাতি” ওয়ার্নার, আর সিলেটে গেইলকে ছয় মেরে ফিফটি করেছেন “সম্পূর্ণ ডানহাতি” ডেভিড ওয়ার্নার।

ডেভিড ওয়ার্নার নিয়ন আলোয় neonaloy

Most Popular

আর দশটি নিউজপোর্টালের মত যাচ্ছেতাই জগাখিচুড়ি না, "নিয়ন আলোয়" আমাদের সবার লেখা নিয়ে আমাদের জন্যই প্রকাশিত হওয়া বাংলা ভাষায় প্রথম পূর্ণাঙ্গ অনলাইন ম্যাগাজিন।

আজকের আলোচিত

Copyright © 2016 Neon Aloy Magazine

To Top