টুকিটাকি

অজানা এক রহস্য যেন মানবমস্তিষ্ক

প্রকৃতি, জগৎ, ভূমন্ডল ,জীব, মহাবিশ্ব ইত্যাদি নিয়ে আমাদের যেন কৌতূহলের অন্ত নেই। কিন্তু আমাদের মানবদেহের মাঝে যে রহস্য লুকিয়ে আছে তার কতটুকুই বা আমরা জানি আর কতটুকুই নিয়ে আমরা চিন্তা করি। অদ্ভুত সব রহস্যে ঘেরা এই মানবদেহের রহস্য অনুসন্ধানে আজও বিশ্বের হাজার-হাজার বিজ্ঞানী নিরলস চেষ্টা করে যাচ্ছেন। রহস্যের মায়াজালে ঘেরা এই মানবদেহের মস্তিষ্ষ্কের কিছু অজানা বিষয় নিয়ে চলুন না আজকে আমরা কিছু জেনে আসি।

জেনে অদ্ভুত লাগলেও সত্যি যে কোন খবর মানুষের মস্তিষ্ক হতে তার স্নায়ুতে ২৭০ মাইল/ঘন্টা গতিবেগে যায়। যা Hennessey Venom GT- পৃথিবীর সবচেয়ে দ্রুতগামী স্ট্রিট কারের সমান।

নিউরনের তথ্য প্রেরণ

সম্প্রতি Live Science নামক অনলাইন জার্নালের সিনিয়র লেখক টিয়া ঘোষ, Salk Institute in La Jolla, California এর জীববিজ্ঞানী Terry Sejnowski এর এক গবেষণায় বলা হয়, কম্পিউটার কোন তথ্যকে ০ অথবা ১ বিট হিসেবে বিশ্লেষণ বা সংরক্ষণ করে, যেখানে একটি মানব মস্তিষ্ক কোন তথ্য বিশ্লেষণ করতে ২৬টি বিভিন্ন বিট ব্যবহার করে। যার থেকে ধারণা করা হয় মানব মস্তিষ্কের ধারণ ক্ষমতা হচ্ছে ১ পেটাবাইট (১পেটাবাইট= ১০০০টেরাবাইট)। আর সবচেয়ে মজার বিষয় হচ্ছে  মানব মস্তিষ্ক এই মানের তথ্য সঞ্চয় করতে একটি হালকা বাল্ব চালানোর সমতূল্য শক্তি খরচ করে।

তথ্য সংরক্ষনের সময় নিউরণ এর কিছু অংশ

দুঃখজনক হলেও সত্য মানুষের বিবর্তনের অন্যতম খারাপ দিক হচ্ছে আমাদের মনযোগ ধারণ সময়কাল সময়ের সাথে কমে যাচ্ছে। ২০০০ সালে মানুষের গড় মনোযোগ সময়কাল ছিল ১২ সেকেন্ড। যা বর্তমানে এসে দাঁড়িয়েছে ৮ সেকেন্ড।

অত্যন্ত মজার একটি বিষয় হচ্ছে, আপনার মস্তিষ্কে ব্যথা প্রক্রিয়াকরণ হলেও আপনার মস্তিষ্কের নিজস্ব কোন ব্যথা রিসেপটর নেই, যে কারণে মস্তিষ্ক কোন ব্যথা অনুভব করে না। এটি ব্যাখ্যা করে কিভাবে মস্তিষ্কের অপারেশন করা যায় রোগীকে জাগ্রত রেখে।

A part of Brain operation

আমি আপনি দিন রাত কতই না চিন্তা করি। কখনো কি চিন্তা করে দেখেছেন আমাদের দৈনিক কত বিষয় নিয়ে চিন্তা করতে পারি? জেনে আসলেই চমকে উঠবেন যে আমাদের মস্তিষ্কের মাধ্যমে আপনি দৈনিক ৭০ হাজার বিষয় নিয়ে চিন্তা করতে পারেন। কি সত্যিই পিলে চমকে উঠার মত কথা না?

চিন্তারত অবস্থায় মানব মস্তিষ্ক (শিল্পীর কল্পনায়)

ছোটবেলায় আমরা কতই না শুনেছি – Practice makes a man perfect. কিন্তু কখনো কি এই চিন্তাটা করেছি কিভাবে আমাদের মস্তিষ্ক এই আজব কাজটি করে। জেনে আসলেই চমকে উঠবেন যে আমাদের মস্তিষ্ক প্রতিদিনই গাঠনিকভাবে পরিবর্তিত হচ্ছে। মস্তিষ্কের মাংসপেশিগুলো প্রতিনিয়তই পরিবর্তিত হয়। আপনি কোন কাজ যত বেশি করবেন সেই কাজের পন্থাগুলো যেই পথ দিয়ে গিয়ে আপনার মস্তিষ্কে জমা রেখেছে সেই পথটি প্রতিনিয়তই প্রস্থে বৃদ্ধি পায় যার ফলে পরবর্তীতে আপনি সেই কাজটি অনাসায়ে করতে পারেন কারণ কাজের পন্থাগুলোর সিগনাল ওই পথ দিয়ে খুবই দ্রুত আসা যাওয়া করতে পারে।

লিম্বিক সিস্টেম সাময়িক স্মৃতিধারক

জেনে অবাক লাগতেই পারে আপনার স্নায়ুতন্ত্র এটাই আলাদা করতে পারে না যে কোনটি বাস্তব আর কোনটি কল্পনা। যেমন ধরুণ আপনি কল্পনা করছেন যে আপনি কোন এক উঁচু দালানের রেলিং এর ধারে হাত দিয়ে ধরে ঝুলছেন। যেহেতু বিষয়টা অনেক ভয়ানক তাই দেখবেন যে আপনা আপনি আপনার হাতের তালু ঘামাতে শুরু করেছে। তাই তো বিশ্বসেরা খেলোয়াড়রা বিশ্রামের সময় খেলার দক্ষতা বৃদ্ধির জন্য খেলার কৌশলগুলো কল্পনা করে।

কখনো কি শুনেছেন ‘তৃতীয় চোখ’ এর কথা? আশা করি না মনে হয়। আমাদের মস্তিষ্ক এতটাই অদ্ভুত যে এর মধ্যে থাকা ‘পিনিয়াল গ্রন্থি’(মধ্য মস্তিষ্কে অবস্থিত) বলা হয় তৃতীয় চোখ। কারণ এই পিনিয়াল গ্রন্থিতে রেটিনার টিস্যু আছে যা আলো গ্রহণের রিসিপটর হিসেবে কাজ করে।

পিনিয়াল গ্রন্থি

আত্মা কি? অদ্ভুতুরে প্রশ্নগুলোর মধ্যে এটি যেন একটি। সম্প্রতি এক গবেষণায় দেখা যায় যে আমাদের এই পিনিয়াল গ্রন্থি এক ধরনের রাসায়নিক পদার্থ তৈরি করে যা হচ্ছে DMT (N,N-Dimethyltryptamine) যাকে বলা হয় “The Spirit Molecule” অথবা “The Seat Of the Soul” ধারণা করা হয় এই DMT মানুষের স্বপ্ন দেখার সময় নিঃসরণ হয় অথবা কোন অশরীরীয় অনুভূতির সময়। এমনকি জন্ম বা মৃত্যুর সময়েও। এ কারণে একে সবচেয়ে শক্তিশালী হেলুসেনিক ড্রাগ বলা হয়।

DMT-এর রাসায়নিক গঠন

ধ্যান বা মেডিটেশন মানুষের কাছে এখন প্রিয় শব্দের যেন একটি। প্রতিটি মানুষই চায় যথা সম্ভব ধীর স্থিরে এবং অত্যন্ত বিচক্ষণতার সাথে কাজ করতে। নিজের ক্রোধ এবং নিজের আচরণের উপর নিয়ন্ত্রণ আনার অন্যতম উপায় মানুষের কাছে এখন হচ্ছে মেডিটেশন। স্নায়ুবিজ্ঞানীরা প্রমাণ করেছেন যে আপনি টানা ৮ সপ্তাহ মেডিটেশন করার মাধ্যমে আপনার মস্তিষ্কের গঠনের যথেষ্ট পরিবর্তন আনতে পারবেন যা আপনার দৈনিক বদভ্যাসগুলো ঝেরে ফেলতে অনেকটাই সহায়ক।

মানব মস্তিষ্কের আশ্চর্যের কোন অন্ত যেন কখনোই নেই। বিবর্তনের ক্রমধারায় মানুষের মস্তিষ্কের রহস্য যেন আরো বেড়ে উঠছে। ঈশ্বর প্রদত্ত এই মস্তিষ্ককে আমরা যতই ঘাঁটবো নতুন নতুন তথ্য যেন আমাদের আরো হাতছানি দিবে। আজব এক কারখানা তাই মানবদেহ।

তথ্যসূত্রঃ

  1. The Human Brain’s Memory Could Store the Entire Internet
  2. 84 Amazing Facts about the Human Body
  3. http://www.statisticbrain.com/attention-span-statistics/
  4. 72 Amazing Human Brain Facts (Based on the Latest Science) By Deane Alban & Dr. Patrick Alban
  5. The Most Amazing Facts About The Human Brain

Most Popular

To Top