লাইফস্টাইল

কম বয়সে চুলে পাক ধরেছে?

কম বয়সে চুলে পাক ধরেছে?/NeonAloy

প্রকৃতির স্বাভাবিক নিয়মে সবকিছু হবে এটাই আমাদের কাছে কাম্য । এর বাইরে কিছু দেখলে আমরা অবাক হই। পৃথিবীর সূচনালগ্ন থেকেই মানুষ চুলের বিশেষ যত্ন নিয়ে আসছে। সুন্দর আর পরিপাটি চুলের জন্য মানুষের রয়েছে অবিরাম প্রচেষ্টা। কিন্তু এই চুল অনেক সময় অনেককে হতাশার সাগরে ডুবিয়ে দেয়। বয়স বাড়লে চুল পাকবে এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু ইদানিং অল্প বয়সের ছেলে-মেয়েদের চুল পাকা যেনো একটি ব্যাধিতে পরিণত হয়েছে। ফলে তাদের পরতে হচ্ছে বিব্রতকর পরিস্থিতিতে। আর পরিবারের গুরুজনদের  এ নিয়ে দুশ্চিন্তার অন্ত নেই। আসলে কি কারণে অল্প বয়সে চুল পাকে? এই রহস্য উদঘাটনের জন্য গবেষকরা দিনরাত গবেষণা চালিয়ে যাচ্ছেন। চলুন জেনে আসি এ নিয়ে খুঁটি-নাটি  কিছু তথ্য।

বয়সের ঘন্টা বাজছে?

আমাদের সকলের জীবনের এমন একটি সময় আসে যখন আমাদের চুল ধূসর রঙ হয় গবেষণায় দেখা গেছে, সাধারণত ২৪ থেকে ৩৫ বছর বয়সের মানুষের মধ্যে শতকরা প্রায় ২৫ জনের চুলে পাক ধরে। পরে বয়স বাড়ার সঙ্গে চুল পাকার সংখ্যা আরও বেড়ে ৫০% এ দাঁড়ায়।

কম বয়সে চুলে পাক ধরেছে?/NeonAloy

 

অল্প বয়সে মেলালিন কমে; হয়ে গেলো সাদা কেশঃ

এই পৃথিবীততে সবাই ব্যতিক্রম। কিন্তু সবার চুলের ফলিকলের পিগ্মেন্ট একইভাবে তৈরি হয়। আমাদের চুলের ফলিকল কোষের মেলানোসাইটস পিগ্মেন্টটির নাম হচ্ছে মেলানিন। আসলে আমাদের চুলের রঙ এই মেলানিনের তারতম্যের মাধ্যমে নির্ধারণ হয়ে থাকে। অল্প বয়সে যাদের চুল পাকে তাদের কারও কারও মধ্যে অটোইমিউন ডিজিজের কারণে মেলানোসাইট কোষ নিষ্ক্রিয় হয়ে যায়। ফলে চুলে মেলানিন না পৌছানোর কারণে চুল পাকে। এই অটোইমিউন ডিজিজে ত্বকে মেলানোসাইটের বিরুদ্ধে অ্যান্টি মেলানোসাইট অ্যান্টিবডি তৈরি হয়, যা মেলানোসাইট কোষকে ধ্বংস করে দেয়। আর যখন এই মেলানোসাইট পিগ্মেন্ট উৎপন্ন করা বন্ধ করে দেয় তখন আমাদের চুল সাদা হয়ে যায়। সাদা চলে যখন কালো চুলের সাথে মিশে থাকে তখন চুল  দেখতে অনেকটা ধূসর রঙের মতন লাগে। এটা যেকোনও বয়সেই হতে পারে।

কম বয়সে চুলে পাক ধরেছে?/NeonAloy

 


জিন ছাড়বেনা কোনও কিছুঃ

বংশগতিকে এ ধরনের চুল পাকার মূল কারণ হিসেবে ধরা হচ্ছে। যদি কারো বাবা মার অল্প বয়সে চুল ধূসর হয়ে যায় তবে তারো এ ধরনের অপরিপক্ব চুল গজানোর সম্ভাবনা থাকে। প্রকৃতপক্ষে, চুল ধূসর হওয়ার পিছনে বয়স একটি মুখ্য ভূমিকা পালন করে। চুলের গোড়ায় যে কোষ থাকে তার থেকেই চুলের পিগ্মেন্ট তৈরি হয়। আর বয়স বাড়ার সাথে সাথে এ পিগ্মেন্ট মাত্রা কমে যায় আর সর্বশেষে আমারা পাই সাদা চুল।

কম বয়সে চুলে পাক ধরেছে?/NeonAloy

 

 

চুল কে ঠিক মতো খাওয়াচ্ছেন তো ?

এছাড়াও ধূসর চুল শারিরীক সুস্থতার উপরও নির্ভর করে। যদি কারো শরীরে ভিটামিন বি আর থাইরোয়েডের ঘাটতি থাকে তাহলে অল্প বয়সে তার চুল পেকে যায়।

কম বয়সে চুলে পাক ধরেছে?/NeonAloy

 

হঠাৎ চুল পড়েছে, টনক নড়েছেঃ

কিন্তু হঠাৎ করে চুল পেকে যাওয়া কোনো মানসিক চাপ বা আঘাতের ফল না। আরেক গবেষণায় জনা গেছে যে, টেগ্লন এফ্লোভিয়ামের কারণেও চুল ধূসর রঙ ধারণ করে। যখন চুলের টেগ্লন এফ্লোভিয়াম উৎপন্ন বন্ধ হয়ে যায় ঠিক তখনি চুল রাতারাতি ধূসর হয়ে যায় । একটা কথা স্মরনযোগ্য, অল্প বয়সে কিংবা বেশি বয়সে চুল পাকার ব্যাপারটি কিন্তু হঠাৎ করে ঘটে না। লক্ষ্য করলে দেখা যায়, প্রথমে কয়েকটি চুল পাকতে শুরু করে, পরে ধীরে ধীরে অন্যান্য চুল গুলোতে পাক ধরে।

 এছাড়াও অতিরিক্ত ধূমপান, ঘুম না আসা, চুলে হেয়ার ড্রায়ার অতিরিক্ত ব্যবহারকেও অনেক গবেষক দায়ী করেছেন।

 

আরো পড়ুনঃ উপকারী কিছু ওয়েবসাইট

Most Popular

To Top