টুকিটাকি

বিপদে ফেসবুক, বাধ্য হয়ে মুখ খুললেন জুকারবার্গ

বিপদে ফেসবুক, বাধ্য হয়ে মুখ খুললেন জুকারবার্গ- নিয়ন আলোয়

ক্যামব্রিজ অ্যানালাইটিকার কেনেঙ্কারির ব্যাপারে মুখ খুললেন ফেসবুক সহ প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জাকারবার্গ। এই গেল সোমবারে কেমব্রিজ অ্যানালিটিকাকে পাঁচ কোটি গ্রাহকের ব্যক্তিগত তথ্য অ্যাক্সেসকরতে দেয়ার তথ্য ফাঁস হওয়ার ঘটনায় প্রতিষ্ঠান্টির মার্কেট ভ্যালু কমে দাঁড়ালো ৪০ বিলিয়ন ডলারে। ফেসবুক বার্তার মাধ্যমে তিনি সবার কাছে এ বিষয়ে পরিষ্কার ধারণা দিয়েছেন।

মার্ক জাকারবার্গের বিবৃতি নিন্মে দেয়া হলোঃ

আমি ক্যামব্রিজ অ্যানালাইটিকার পরিস্থিতি সম্পর্কে একটি তথ্য সুনিশ্চিত করতে চাই- আমরা ইতিমধ্যেই নেওয়া পদক্ষেপগুলো এবং এই গুরুত্বপূর্ণ সমস্যাটি মোকাবেলা করার জন্য আমাদের পরবর্তী ধাপগুলো সহ।

আমাদের দায়িত্ব আপনাদের তথ্যগুলোর সুরক্ষতা নিশ্চিত করা। যদি আমরা আপনাদের সুরক্ষা দিতে ব্যর্থ হই তাহলে আমরা আপনাদেরকে সেবা দান করার যোগ্যতা রাখি না। আমি যথাযথ ভাবে জানার চেষ্টা করছি কি ঘটনা ঘটেছিলো এবং নিশ্চিত করতে চাচ্ছি যেন ঘটনাটি আবার না হয়। সুখের বিষয় এই যে আমরা এই পদক্ষেপ বিগত কয়েক বছর আগেই নিয়েছিলাম। কিন্তু আমরা কিছু ভুল করেছিলাম, আরও কিছু করতে হবে এবং আমাদের পদক্ষেপ নিতে হবে এবং এটি করতেই হবে।

এখানে ঘটনাটির একটি বিবৃতি দেয়া আছেঃ

২০০৭ সালে আমরা ফেসবুক প্ল্যাটফর্মকে চালু করি এই লক্ষ্যে যে অন্যান্য অ্যাপসগুলোও সামাজিক হওয়া উচিত। আপনার ক্যালেন্ডার আপনার বন্ধুর জন্মদিনগুলো দেখাতে সক্ষম হওয়া উচিত, আপনার মানচিত্রে আপনার বন্ধুদের থাকার অবস্থান দেখানো উচিত এবং আপনার ঠিকানা বইয়ে তাদের ছবি দেখানো উচিত। এটি করতে গিয়ে আমরা মানুষদেরকে এসকল অ্যাপসে লগ ইন করিয়েছি এবং তারা শেয়ার করেছে তাদের আর তাদের বন্ধুদের কিছু তথ্যকে।

২০১৩ এ আলেকজেন্ডার কোগেন নামক একজন কেম্ব্রিজ ইউনিভার্সিটির রিসার্চার একটি ব্যক্তিগত কুইজ অ্যাপস তৈরি করেছিলেন। এটি প্রায় ৩০০,০০০ মানুষ ইন্সটল করেছিলেন এবং যার মাধ্যমে তারা তাদের এবং তাদের বন্ধুদের ব্যক্তিগত কিছু তথ্য শেয়ার করে। আমাদের প্ল্যাটফর্মকে ব্যবহার করে উদ্দেশ্য প্রবণ এই কোগেন ১০ মিলয়নের মত ফেসবুক ব্যবহারকারী এবং তাদের বন্ধুদের তথ্য সংগ্রহ করতে সক্ষম হয়।

২০১৪ সালে এই সকল উদ্দেশ্যপ্রবণ অ্যাপসগুলোকে সরানোর জন্য আমরা আমাদের পুরো প্লাটফর্মকে নাটকিয়তার ছলে বদলে দেই যাতে এই অ্যাপসগুলো সীমিতসংখ্যক তথ্য সংগ্রহ করতে পারে। আরো বিশেষ কথা যে কোগেনের অ্যাপস এর মতো অ্যপস কোন ব্যক্তির তথ্য নিতে পারবে না যদি না সেই ব্যক্তি নিজে অনুমতি দেয়। এছাড়া আমরা ডেভেলপারদের বাঞ্ছনীয় করে দিয়েছিলাম যে তারা আগে অনুমতি নিবে সংবেদনশীল কিছু তথ্য গ্রহণ করবার পূর্বে। এই পদক্ষেপের কারণে কোগেনের মতো অ্যাপসগুলো এখন বেশী তথ্য গ্রহণ করতে পারে না।

২০১৫ সালে আমরা গার্ডিয়ান এর সাংবাদিক থেকে জানতে পারি কোগেন তার অ্যাপস থেকে তথ্য ক্যামব্রিজ অ্যানালাইটিকার কাছে শেয়ার করেছে। এটি আমাদের নীতির বিরুদ্ধে  যে কোন ডেভেলপার কোন ব্যক্তির অনুমিত ব্যতিরেকে তার তথ্য শেয়ার করে আর তাই আমরা খুব দ্রুত কোগেনের অ্যাপসকে আমাদের প্ল্যাটফর্ম থেকে নিষিদ্ধ করে দেই এবং দাবি করি কোগেন আর ক্যাম্বিজ অ্যানালাইটিকার কাছে যে তাদের সংগ্রহকৃত সকল ডাটা মুছে ফেলার জন্য। তারা এ চুক্তি মেনে নেয়।

গত সপ্তাহে আমরা দি গার্ডিয়ান, দি নিউইয়র্ক টাইম এবং চ্যানেল ৪ থেকে অবগত হলাম যে ক্যাম্ব্রিজ অ্যানালাইটিকা সম্ভবত তথ্যগুলোকে মুছে ফেলেনি যার প্রতিশ্রুতি তারা পূর্বে আমাদেরকে দিয়েছিলো। আমরা খুব জলদি তাদেরকে আমাদের সব সার্ভিস থেকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছি। কিন্তু তারা দাবি করছে যে তারা সকল প্রকার তথ্য মুছে দিয়েছে এবং আদালতের মাধ্যমে যেন এর সত্যতা যাচাই করা হয় দৃঢ়তার সাথে। আমরা এই নিয়ে নিয়ন্ত্রকের সাথে কথা বলেছে যাতে করে প্রকৃত সত্যতা যাচাই করতে পারে।
এটি ছিলো কোগেন, ক্যাম্ব্রিজ অ্যানালাইটিকা আর ফেসবুকের সাথে বিশ্বাস হারানোর ঘটনা। কিন্তু এটি ফেসবুক আর সেইসকল ব্যবহার কারীদের উপরো আস্থা হারানোর ঘটনা যারা কিনা বিশ্বাস করতো তাদের শেয়ারকৃত তথ্যের সুরক্ষা নিশ্চিত করছে ফেসবুক। আমরা আবার বিশ্বাস ফিরে পেতে চাই।

এই অবস্থা থেকে পরিত্রাণ পেতে আমরা ইতোমধ্যে কয়েকবছর আগে ২০১৪ সালে পদক্ষেপ নিয়েছি যাতে কোন ছলনাময়ী কারো ব্যক্তিগত তথ্য নিতে না পারে।

কিন্তু আমাদের আরো অনেক পদক্ষেপ নিতে হবে আর তারই কিছু ধাপ সম্পর্কে বলছি এখানে:

প্রথমত, আমরা সে সকল অ্যাপ্সের তদন্ত করবো যারা ২০১৪ আমাদের প্লাটফর্ম ডাটার অ্যাক্সেস নাটকীয়ভাবে হ্রাস করার পূর্বে তারা বৃহৎ পরিসরে তথ্য সংগ্রহ করেছিলো এবং পূর্ন নিরক্ষন করে দেখবো যে তারা সন্দেহ জনক কোন কাজে জড়িত ছিলো নাকি। যদি আমরা পরীক্ষণের ফলে ডেভেলপারদের সন্দেহ জনক কোন তথ্য পাই তাহলে আমরা তাদের নিষিদ্ধ করবো এবং তাদের দ্বারা ক্ষতিগ্রস্ত মানুষদের এ ব্যাপারে অবগত করবো।কোগেন দ্বারা অপব্যবহৃত ব্যক্তিবর্গ এ তালিকার অন্তর্ভুক্ত থাকবেন।

দ্বিতীয়ত, আমরা অন্যান্য ধরনের অপরাধ রোধ করার জন্য ডেভেলপারদের ডেটা অ্যাক্সেস সীমাবদ্ধ রাখবো। উদাহরণ স্বরূপ, যদি আপনি তাদের অ্যাপ্লিকেশন ৩ মাসের মধ্যে এক্সেস না করেন তাহলে আমরা আপনার ডাটাতে ডেভেলপারদের অ্যাক্সেস সরিয়ে দিবো। একটি অ্যাপ্লিকেশন এক্সেস করতে শুধুমাত্র আপনার নাম, ছবি আর ইমেইল লাগবে।বৃহৎ পরিসরের তথ্য প্রয়োজন পড়বে না।আর কোন ডেভেলপার আপনাদের ব্যক্তিগত তথ্য শেয়ার বা পোস্টের ক্ষেত্রে আপনাদের কাছ থেকে শুধু অনুমিত না চুক্তিবদ্ধ ও হতে হবে।আমরা আরো অনেক ধরনের পরিবর্তন আনবো যা কয়েকদিনের মধ্যেই আপনাদের অবগত করা হবে।

তৃতীয়ত, আমরা আপনাদের জানাতে চাই যে কোন অ্যাপলিকেশন গুলোতে আপনি আপনার ব্যক্তিগত তথ্য দিতে পারবেন। সামনের মাসে আপনার নিউজ ফিডের সামনে একটা টুলস এড করা হবে যা দেখাবে আপনি কোন কোন অ্যাপ্লিকেশনগুলো অ্যাক্সেস করেছেন এবং কোন গুলোতে সহজে অনুমিত প্রত্যাখ্যান করতে পারেন। যদি ও এই টুলস্টি পূর্বেই আপ্নাফ প্রাইভেসি সেটিং- এ দেয়া আছে তবুও আমরা নিউজ ফিডের সামনে রাখবো যাতে সবাই এটি সহজে দেখতে পারে।

২০১৪ সালে যে পদক্ষেপগুলো নিয়েছি সেগুলোতো আছেই,আমি বিশ্বাস করি আমাদের প্ল্যাটফর্মকে সুরক্ষিত রাখবার জন্য অবশ্যই এই পদক্ষেপগুলো নিতেই হবে।

আমি ফেসবুকের প্রবর্তক তাই শেষ দিন পর্যন্ত এই প্ল্যাটফর্মের সকল প্রকার কর্মফলের দ্বায়িত্ব আমার। আমদের সমাজের সুরক্ষা প্রদানে আমি দৃঢ় প্রতিজ্ঞাবদ্ধ। যদিও এই নির্দিষ্ট বিষয়ে কেম্বিজ অ্যানালাইটিকা জড়িত এখন আর নতুন অ্যাপ্লিকেশনের সাথে তা ঘটবে না, যা অতীতকে পরিবর্তন করে না। আমরা এই অভিজ্ঞা থেকে শিক্ষা নিবো আর ভবিষ্যৎ এ যেনো আমরা সকলে সুরক্ষিত ভাবে এই প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করতে পারি তা নিশ্চিত করবো।

আমি আপনাদের সবাইকে ধন্যবাদ জানাই যারা এখনো আমাদের লক্ষ্যে বিশ্বাসী আছেন এবং এই সমাজকে একত্রিত করতে কাজ করছেন। আমি জানি যে এই সমস্যা গুলোকে সমাধান করতে একটি দীর্ঘ পথ পাড়ি দিতে হবে কিন্তু প্রতিশ্রুতি দিচ্ছি যে আমারা এর মাধ্যমে কাজ করবো এবং একটি দীর্ঘমেয়াদী ভালো সেবা প্রদান করবো।

Most Popular

To Top