শিল্প ও সংস্কৃতি

২৪ বছরে শাহরুখ খানের “কাভি হাঁ কাভি না”

শাহরুখ খান

সুনীল (শাহরুখ) ভালোবাসে আনাকে (সুচিত্রা), এদিকে আনা ভালোবাসে ক্রিসকে (দীপক) আবার ক্রীসও ভালোবাসে আনাকে।
সুনীল সব দিক দিয়ে অযোগ্য। একাডেমিক পরীক্ষায় অকৃতকার্য কিন্তু মিউজিক খুব ভালোবাসেন । সবাই ওকে অকর্মা হিসেবেই জানে । অন্যদিকে ক্রীস ভালো ছাত্র, পরিবারের ব্যবসা সামলায়, বলতে গেলে সবদিকে থেকেই যোগ্য। আনার বাবা-মা চায় ক্রিসের সাথে আনার বিয়ে দিতে । কিন্তু ক্রিসের ফ্যামিলি আনার ফ্যামিলিকে যোগ্য মনে করে না।

এদিকে সুনীল বিভিন্ন কায়দায় চেষ্টা করে ক্রীসের সাথে আনার প্রেম বিচ্ছেদ করতে। কিন্তু কোনভাবেই সে পেরে ওঠেনা। এর মাঝে সুনীল ৪র্থ বারের মতো আবার পরীক্ষায় ফেল করে। ওদিকে সুনীলের আন্ডার ওয়ার্ল্ডের বন্ধু ওকে নকল মার্কসিট বানিয়ে দেয়। এদিকে ক্রীসের বাবা-মা ক্রীসের সাথে অন্য এক মেয়ের বিয়ে ঠিক করে। ফলে আনার বাবা-মা সুনীলের সাথে আনার বিয়েতে রাজি হয়। কিন্তু শেষ মুহূর্তে সুনীল, ক্রীস আর আনার কিছু কথা শুনে ফেলে। যার ফলাফল- স্যাকরিফাইস।

সিনেমার কাহিনীটা সাদামাটা শোনাচ্ছে, তাই না? একদম ঠিক। খুবই সাদামাটা কাহিনী। তারপরেও কোথায় যেন একটা “কিন্তু” আছে। শাহরুখের অন্য সব সিনেমা নিয়ে যেভাবে আলোচনা করা হয়, এই সিনেমাটি নিয়ে সে অর্থে তেমন একটা আলোচনা করা হয় না। অথচ, এই সিনেমার প্রতিটি দৃশ্যে শাহরুখ খুব ন্যাচারাল ও মনোমুগ্ধকর অভিনয় করেছেন। সে বছর তিনি এই সিনেমার জন্যে Filmfare Critics Award For Best Performance লাভ করেন। এটি বলিউডের অন্যতম মেইনস্ট্রিম সিনেমা যেখানে পুরো সিনেমা জুড়ে নায়ক কে লুজার হিসেবে দেখানো হয়েছে। অনেকটা নিভৃতেই দেখতে দেখতে ২৪ বছরে শাহরুখের “কাভি হাঁ কাভি না”।

একটি ইন্টারভিউতে খান সাহেব বলেছিলেন, “কাভি হাঁ কাভি না আমার নিজেরই খুব প্রিয় একটি সিনেমা। এবং এই সিনেমাটির শুটিং করার সময় আমি যতটা মজা বা আনন্দ করে কাজ করেছি, আর অন্য কোনো সিনেমার ক্ষেএে এমনটা হয়নি”।
মজার ব্যপার হলো সিনেমাটির পারিশ্রমিক হিসেবে শাহরুখ মাএ ২৫ হাজার রুপি নিয়েছিলেন এবং সিনেমাটি যেদিন রিলিজ পায় সেই দিন মুম্বাইয়ের একটি সিনেমা হলে শাহরুখ নিজেই সিনেমার টিকেট বিক্রি করেন।

শাহরুখের অসাধারন অভিনয়, আবেগ, ভালোবাসা, স্যাকরিফাইস, মেকিং সব মিলিয়ে অসাধারন। বেশ কয়েকটা গান আছে সিনেমায় , যা শুনলে শুধু শুনতেই ইচ্ছে করে। সব কিছু মিলিয়ে “কাভি হাঁ কাভি না” ( ১৯৯৪ ) সিনেমাটি বলিউডে অন্যতম সেরা এভারগ্রীণ একটি রোমান্টিক সিনেমা

#পুনশ্চ_
সিনেমাটি পরিচালনা করেছেন
কুন্দন শাহ যিনি গত বছর মারা গিয়েছেন। জানে ভি দো ইয়ারোও, কাভি হাঁ কাভি না, খামোশ ( লেখক) সিনেমা গুলো যারা দেখছেন তারা জানেন নির্মাতা হিসেবে কুন্দন শাহ কতটা মেধাবী ছিলেন।

Most Popular

To Top