শিল্প ও সংস্কৃতি

’গজল সম্রাট ‘জগজিৎ সিং’ স্মরণ

হোটোসে ছুঁ লো তুম, বেদনা মধুর হয়ে যায় তুমি যদি দাও কিংবা বুঝিনি তো আমি গানগুলো শোনেনি এমন বাঙ্গালী কমই আছে। অমর এই গানগুলোর রূপকার, গজল সম্রাট জগজিৎ সিং। নিজস্ব ধারা তৈরি করে, আজও বিশ্বজুড়ে ভক্তদের আবিষ্ট করে রেখেছেন গজলের মায়ায়। প্রয়াত এই শিল্পীর ৭৭তম জন্মবার্ষিকীতে নিয়ন আলোয়ের শ্রদ্ধা।

গজল সম্রাট জগজিৎ সিং

গজল সঙ্গীতকে কাব্যময় করে তুলেছিলেন গজল সম্রাট জগজিৎ সিং। উপমহাদেশের গজল তাঁর কণ্ঠেই পায় আধুনিকতার পরশ। শাস্ত্রীয় ধারার গজলের জটিল সুরকে ভেঙ্গে করেছেন সরল ও আধুনিক।
শুধু হিন্দি নয়, গান গেয়েছেন বাংলা, ঊর্দু, গুজরাটি, সিন্ধি ও নেপালি ভাষায়। প্লেব্যাক করেছেন অর্ধশত ছবিতে। প্রকাশিত অ্যালবামের সংখ্যাও ৮০টি। গান গাওয়ার পাশাপাশি সুর করেছেন অসংখ্য গানে।

সঙ্গীত জগতের গুণী এ শিল্পীর জন্ম ১৯৪১ সালে, ভারতের রাজস্থানের শ্রি গঙ্গানগরে। শৈশব থেকেই সংগীতের সাথে যুক্ত ছিলেন । ওস্তাদ জামাল খানের কাছ থেকে দীক্ষা নেন খেয়াল, ঠুমরি ও ধ্রুপদ সংগীতে। শিল্পী হিসেবে পথ চলার শুরুটা অবশ্য মসৃণ ছিলো না গজল সম্রাটের। বিজ্ঞাপনের জিংগেল গেয়ে কিংবা ছোটখাটো অনুষ্ঠানে গান গেয়ে শুরু করতে হয়েছিলো সংগীত শিল্পীর জীবন।

আরেক জনপ্রিয় গজল গায়িকা স্ত্রী চিত্রা সিংকে নিয়ে আধুনিক গজলে সৃষ্টি করেন এক নতুন অধ্যায়। ১৯৭৬ সালে প্রকাশ পাওয়া তাঁদের দ্বৈত অ্যালবাম ‘দ্য আনফরগেটেবল’। যা আজও অনুরণন তোলে শ্রোতা হৃদয়ে।

চিত্রা সিং ও জগজিৎ সিং

ভারতের গানের ধরনটা একটু অন্যরকম। চলচ্চিত্রের গানের প্রতিই সেখানকার মানুষের আগ্রহ বেশি। এর বাইরে সংগীতে জনপ্রিয় হওয়াটা অনেক কষ্টসাধ্য। সেখানে নিজেকে জয় করেছিলেন জগজিৎ সিং। গজল দিয়েই হয়ে উঠেন জনপ্রিয়। তার স্টাইলের গানের চাহিদা তৈরি হয় চলচ্চিত্রেও। ৮০’র দশকে অর্থ, প্রেমগীত, সাথ সাথ চলচ্চিত্রে জগজিৎ সিং এর গজল তুমুল শ্রোতা প্রিয়তা পায়।
তিনি মির্জা গালিবের কবিতাকে গানে রূপ দিয়েছিলেন। তাঁর গাওয়া আধুনিক বাংলা গান আজও হৃদয়ে দোলা দেয়। প্রেম ও বিরহ কথার গানগুলো চিরনতুন হয়ে আছে আধুনিক বাংলা গানে।

১৯৯৯ সালে প্রথম বাংলাদেশে আসেন গজল সম্রাট। দ্বিতীয় ও শেষবার আসেন ২০০৭ সালে, সেসময় বাংলাদেশ চীন-মৈত্রী সম্মেলন কেন্দ্রে (বর্তমান বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্র), তাঁর সুরে মোহিত করেন বাংলাদেশি দর্শক- শ্রোতাদের।

দীর্ঘ পাঁচ দশকের সঙ্গীত জীবনে পেয়েছেন অসংখ্য পুরস্কার। ভূষিত হয়েছেন ভারতের সর্বোচ্চ সম্মান ‘পদ্মশ্রী’ ও ‘পদ্মভূষণ’ খেতাবে।

২০১১ সালের ১০ অক্টোবর, মস্তিষ্কের রক্তক্ষরণ জনিত কারণে ভারতের মুম্বাইয়ের লীলাবতী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ওপারে পাড়ি জমান গজল সম্রাট জগজিৎ সিং। কিন্তু ভক্ত-শ্রোতাদের কাছে অমর হয়ে আছেন গান দিয়েই।

 

Most Popular

আর দশটি নিউজপোর্টালের মত যাচ্ছেতাই জগাখিচুড়ি না, "নিয়ন আলোয়" আমাদের সবার লেখা নিয়ে আমাদের জন্যই প্রকাশিত হওয়া বাংলা ভাষায় প্রথম পূর্ণাঙ্গ অনলাইন ম্যাগাজিন।

আজকের আলোচিত

Copyright © 2016 Neon Aloy Magazine

To Top