বিশেষ

“২০১৮, তুমি আসো। আমি রেডি!” – বেজবাবা সুমন

২০১৭- এই বছরটা কার কার ভাল গিয়েছে, হাত তুলুন তো? খুব বেশি একটা মানুষ পাওয়া যাবে না হয়তো। বিশেষ করে, সঙ্গীতপ্রেমী মানুষদের জন্য তো এই বছরটা ছিলো ভয়াবহ! একের পর এক ব্যান্ড ভাংচুর হয়েছে, হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশ্যে কাদা ছোঁড়াছুঁড়িও। শ্রোতাদের নতুন অ্যালবাম উপহার দেবার চাইতে বেখবরের শিরোনামে বরং নিজেদের বেশি অলংকৃত করেছে ব্যান্ডগুলো ২০১৭-তে।

শুধু তাই নয়, বছরজুড়ে প্রিয় তারকাদের আকস্মিক মৃত্যুও নাড়া দিয়ে গিয়েছে ভক্তদের। আন্তর্জাতিক পর্যায়ে চাক বেরি, ক্রিস কর্নেল, চেস্টার বেনিংটনের মৃত্যু যেমন স্তব্ধ করেছে; তেমনি দেশে লাকী আখন্দ, বারী সিদ্দিকী‘র মত প্রবাদপ্রতীম শিল্পীর প্রয়াণও স্তব্ধ করেছে।

হারিয়ে ফেলা এই শিল্পীদের তালিকায় যুক্ত হতে পারতো আরো একটি নাম- সাইদুস সালেহীন খালেদ সুমন, যিনি বেইজবাবা নামেই বেশি পরিচিত। শুধু এই বছর না, যমদূতকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়ে আসছেন যিনি প্রতি বছরই। তাহলে এই বছরের বিশেষত্ব কি? বিশেষত্ব সম্ভবত এটাই যে প্রতিবছর নানা ধরণের অসুখ-বিসুখ দিয়ে চেষ্টা করেও সুবিধা করতে না পেরে যমদূত এবার আস্ত একটা গাড়িচাপা দিয়ে মারার চেষ্টা করেছিলো বাংলাদেশের শীর্ষস্থানীয় এই বেজিস্টকে!

২০১৭-তে বছরজুড়ে নিজের শরীরের উপর দিয়ে যাওয়া সব ঝড়-ঝঞ্ঝাটের খতিয়ান দিয়েন বেজবাবা সুমন তার ফেসবুক স্ট্যাটাসে। সেই সাথে চ্যালেঞ্জ জানিয়েছেন ২০১৮ সালকেও, জানিয়ে দিয়েছেন “খেলা হবে”!

সবকিছু দেখে মনে এরকম প্রশ্ন আসাই স্বাভাবিক, বেজবাবা সুমন কি জার্মান দার্শনিক ফ্রিডরিখ নিৎশে’র অনেক বড় ভক্ত? কেননা নিৎশে’র একটি উক্তি আছে-

“That which does not kill us, makes us stronger.”

Most Popular

To Top