ক্ষমতা

যুদ্ধের প্রকৃত ভয়াবহতা অনুভব করতে পারেন কি?

যুদ্ধের প্রকৃত ভয়াবহতা অনুভব করতে পারেন কি? Neon Aloy

যুদ্ধের পদধ্বনি শোনা যাচ্ছে আমাদের একেবারে ঘরের দরজাতেই! স্মরণকালের ইতিহাসে এবারই সবচেয়ে উত্তেজনাময় পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ এবং মিয়ানমার। এরই মধ্যে অবৈধভাবে রোহিঙ্গা পুশ-ইনের সাথে সাথে একাধিকবার বাংলাদেশের আকাশসীমা লঙ্ঘন করেছে মিয়ানমারের হেলিকপ্টার। আন্তর্জাতিক সমালোচনার মুখে জাতিসংঘ মহাসম্মেলনে যোগদান না করার ঘোষণা দিয়েও।

তবে আশ্চর্যজনকভাবে, দুই প্রতিবেশী দেশের মধ্যে যুদ্ধের সম্ভাবনা দেখে পুলকিত হতে দেখা যাচ্ছে আমাদের অনেককেই। রসালো আলাপ শোনা যাচ্ছে চায়ের দোকান থেকে শুরু করে ফেসবুকে। বন্ধুতে-বন্ধুতে বাজিও ধরছেন অনেকে যুদ্ধ শুরু হলে বাংলাদেশ ৫ দিনে মিয়ানমারকে হারাবে, না ১০ দিনে!

তবে একটি যুদ্ধে আসলে যে-ই জিতুক, লাভ আসলে কার? মানবসভ্যতার ইতিহাস বলে, যুদ্ধে যে পক্ষই জিতুক না কেন, হেরে যায় মানবতা। যুদ্ধবিগ্রহের বিভীষিকা কেমন হতে পারে, তা সবার সামনে তুলে ধরার চেষ্টা করছে নিয়ন আলোয়। কিন্তু যুদ্ধের আসল রুপটা একমাত্র জানে যুদ্ধবিদ্ধস্ত জনপদের মানুষরাই। তারপরও প্রথম ও দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের কিছু নিষ্ঠুর বাস্তবতা তুলে ধরা হলো এখানে। এত অমানবিকতা অনুধাবন করে যদি কারো মানবতা জাগ্রত হয়- সে আশায়।

প্রতিদিন গড়ে এতগুলো মানুষ অমানবিকভাবে রাস্তার কুকুর-বিড়ালের চেয়েও খারাপভাবে প্রাণ হারিয়েছে শুধুমাত্র শাসকদের মতভিন্নতার খেসারত দিয়ে! ভাবা যায়?

যুদ্ধের ভয়াবহতা নিয়ন আলোয় neon aloy

সম্মে-এর যুদ্ধে একদিনেই চিরতরে অন্ধকার হয়ে যায় ৬০,০০০ সৈন্য ও তাদের পরিবারের জীবন!

যুদ্ধের ভয়াবহতা নিয়ন আলোয় neon aloy

যুদ্ধাবস্থায় সৈন্যরা কি শুধুমাত্র সম্মুখসমরে বীরের মত লড়াই করেই মারা যায়? বিনা চিকিৎসায় রোগে ভুগে চরম একাকী মৃত্যুবরণ করে না?

যুদ্ধের ভয়াবহতা নিয়ন আলোয় neon aloy

এবং একটি যুদ্ধে কোন পক্ষই শেষ পর্যন্ত আর “মানবিক” থাকে না…

যুদ্ধের ভয়াবহতা নিয়ন আলোয় neon aloy

হিরোশিমার ভয়াবহতা কি একটিমাত্র ছবিতে ফুটিয়ে তোলা সম্ভব? পুরো একটি আলাদা ফটো ফিচারই তৈরি করা যায় যুদ্ধের আগের এবং পরের হিরোশিমার ছবি নিয়ে।

যুদ্ধের ভয়াবহতা নিয়ন আলোয় neon aloy

প্রায় ৭২ বছরেরও বেশি আগে ঘটা সেই পারমাণবিক হামলার ক্ষত এখনো বয়ে বেড়াচ্ছে হিরোশিমা-বাসী

যোদ্ধার বুলেট চিনে না শুধু শত্রুসৈন্যকে, সেটা ইচ্ছাকৃত কিংবা অনিচ্ছাকৃতভাবে ভেদ করে যায় নিরপরাধ বেসামরিক মানুষের শরীরও!

যুদ্ধের ভয়াবহতা নিয়ন আলোয় neon aloy

দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে প্রাণ হারানো সবাইকে পাশাপাশি শোয়ালে মরদেহগুলো সর্বমোট ৫৭.৬৯ বর্গ কিলোমিটার জায়গা দখল করতো। যার মানে, এই মরদেহগুলো এক জায়গায় রাখতে বাংলাদেশের দুইটি সিলেট শহরের (২৬.৫ বর্গ কিলোমিটার) সমান জায়গা লাশে ঢেকে যেত! বলুন এরপরেও কি আপনি চান যুদ্ধ হোক?

যুদ্ধের ভয়াবহতা নিয়ন আলোয় neon aloy

বোনাস ফ্যাক্ট ১ঃ ১ম আর ২য় বিশ্বযুদ্ধ অমানবিক ছিলো, কিন্তু এখনকার যুদ্ধ এত ভয়াবহ না- এটা ভাবলে ভুল করবেন। আধুনিক যুদ্ধের ভয়াবহতা গ্রাস করে কঠিন ট্রেনিং নেওয়া পাথর-হৃদয় সৈনিকদেরও! যে অমানুষিক নৃশংসতা আর পৈশাচিকতা দেখে ঘরে ফিরতে হয়, তা তাদের তাড়া করে বেড়ায় আজীবন। যার প্রমাণ এই ছবিটির পরিসংখ্যান।
(ছবির তথ্যটি শুধুমাত্র যুক্তরাষ্ট্রের সেনাবাহিনীর ক্ষেত্রে পাওয়া)

যুদ্ধের ভয়াবহতা নিয়ন আলোয় neon aloy

বোনাস ফ্যাক্ট ২ঃ সুদূর ইউরোপে হওয়া দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের হাওয়া লেগেছিলো এই বাংলা পর্যন্ত! আর নিজ দেশের সীমান্তে যুদ্ধ শুরু হলে সে আগুনের আঁচ কি আমাদের গায়ে লাগবে না? এরপরেও কি আসন্ন যুদ্ধের কথা ভেবে আপনার মনে পুলক জাগছে?

যুদ্ধের ভয়াবহতা নিয়ন আলোয় neon aloy

আমরা চাই না যুদ্ধ হোক, আমরা শান্তির পক্ষে।

আরো পড়ুনঃ
মিয়ানমার সীমান্তে যুদ্ধ কি প্রভাব ফেলতে পারে বাংলাদেশে?
সাম্প্রতিক বিশ্বরাজনীতির আলোকে বাংলাদেশ-মিয়ানমার পরিস্থিতি পর্যালোচনা।

Most Popular

To Top