বিশেষ

হুমায়ুন ফরিদীঃ এক বহুমাত্রিক অভিনেতা হারানোর আক্ষেপ

হুমায়ুন ফরীদি নিয়ন আলোয় neonaloy

“কোথাও কেউ নেই” নাটকে উকিল, বাকের ভাইয়ের ভাষায় নাম্বার ওয়ান “ধুনকর”, মানে যিনি তুলোধুনো করেন প্রতিপক্ষের উকিলকে; সেই উকিল ইয়াকুব আলী সরকার।

বাকের ভাই এর মামলাটা তিনি হেরে গেলেন বদি’র মিথ্যা সাক্ষীর কারণে। কোর্ট থেকে বদির বেরিয়ে যাবার সময় রাগে গজগজ করে তিনি যখন বদিকে বলেন, “বদি, ইচ্ছে করলে এই মামলা আমি ধূলোয় উড়িয়ে দিতে পারতাম, শুধু তোমার কারণে পারি নি… You… You..!”

“নীতু তোমাকে ভালোবাসি” নাটকে হুমায়ুন ফরিদী কাজীর চরিত্র। শমী কায়সার কাজী অফিসে অপেক্ষা করছেন জাহিদ হাসানের জন্য। সেই কাজি অফিসের কাজি তিনি। কিছুক্ষণ পরপর এসে ইচ্ছে করেই শমীকে বিরক্ত করছেন। একবার জিজ্ঞেস করেন, “চা খাবেন..??” আরেকবার জিজ্ঞেস করেন, “পত্রিকা এনে দিই..??”

জাহিদ হাসানের আসতে দেরী হওয়ায় শেষমেশ এসে বলেন, “ম্যাডাম আপনি চলে যান.. ছেলে আসবে না।” শমী খুব অবাক হয়ে জিজ্ঞেস করেন, “কেন?”
তখন তিনি ডেলিভার করলেন সেই বিখ্যাত ডায়লগ, “এরকম অসংখ্য ঘটনা দেখেছি। ছেলে এসেছে তো মেয়ে আসে নাই, মেয়ে এসেছে তো ছেলে আসে নাই। এমনও হয়েছে যে সাক্ষী দুজন উপস্থিত.. কিন্তু ছেলে-মেয়ে কেউই আসে নাই.. হা! হা! হা!”

নিয়ন আলোয়

“জয়যাত্রা” সিনেমায় ফরিদী

দেশের প্রথম সাইকো থ্রীলার, শহীদুল ইসলাম খোকন পরিচালিত ‘বিশ্বপ্রেমিক’ সিনেমায় তিনি সাইকো কিলার। সেই সাইকো কিলারের চরিত্রকে তিনি নিয়ে গেছেন আকাশচুম্বী উচ্চতায়। নায়িকা মৌসুমীর সাথে বিখ্যাত “তোমরা কাউকে বলো না। কাউকে বলো না!” গানে নাচ, ভুলা যায়?

খোকনের আরেকটি ছবি ‘ভন্ড’। সেখানে টাউট, চেক জালিয়াত ‘প্রিন্স’ চরিত্র, কমেডি রোলে অভিনয় করেছেন এটিএম শামসুজ্জামানের সাথে বরাবর টেক্কা দিয়ে!

নিয়ন আলোয়

“পালাবী কোথায়” সিনেমায় রেখেছেন অসাধারণ অভিনয়ের সাক্ষর

খোকনের’ই বানানো আমার দৃষ্টিতে সেরা ছবি, “পালাবি কোথায়?” শাবানা, চম্পা, সুবর্না মোস্তফার সাথে পাল্লা দিয়ে রোমান্স, সে এক মারাত্মক ডার্ক কমেডি, খাদহীন অভিনয়।

“সংশপ্তক” নাটকে যার ভিলেন রোলের অভিনয় এতোটাই স্মুথ ছিলো যে, এই দেশের মানুষ দীর্ঘদিন তাঁকে চিনেছে নাটকের চরিত্র ‘কান কাটা রমজান’ নামেই।

নাওয়াজউদ্দীন সিদ্দিকী, ইরফান খান দূরে থাক, মর্গান ফ্রীম্যান বা জ্যাক নিকলসনকেও আমার এই মানুষটির চেয়ে বড় অভিনেতা মনে হয় নি কোনদিন। মানুষটার দেয়ার ছিলো আরো অনেক কিছু। আমরা তাঁর কাছ থেকে বের করে নিতে পারতাম কালজয়ী আরো অনেক চলচ্চিত্র অথবা নাটক। দূর্ভাগ্য আমাদের, খুব বেশি গুণী নির্মাতা পেলেন না জীবদ্দশায়।

কতোটা মন্দভাগ্য আমাদের, চলে গেলেন তিনিও। একেবারেই ভুল সময়ে।

প্রিয় অভিনেতা হুমায়ূন ফরিদী। ভালো থাকবেন ওপাড়ে, নিজগুণে আমাদের ক্ষমা করবেন।

Most Popular

আর দশটি নিউজপোর্টালের মত যাচ্ছেতাই জগাখিচুড়ি না, "নিয়ন আলোয়" আমাদের সবার লেখা নিয়ে আমাদের জন্যই প্রকাশিত হওয়া বাংলা ভাষায় প্রথম পূর্ণাঙ্গ অনলাইন ম্যাগাজিন।

আজকের আলোচিত

Copyright © 2016 Neon Aloy Magazine

To Top