নাগরিক কথা

সাকিবও তো একজন রক্ত-মাংসের মানুষ, তাই না?

neon aloy সাকিব মানুষ নিয়ন আলোয়

মাইকেল জ্যাকসন যখন শিশুদের যৌন নির্যাতনের মতো ভয়ংকর অপরাধে অভিযুক্ত হলেন, সেই কেসের শুনানির জন্যে কোর্টে যাবার সময় কোর্টের সামনে জড় হয়েছিলেন মাইকেলের অগণিত ভক্ত। তারা সমস্বরে চিৎকার করে বলছিলেন “Not Guilty… Not Guilty!!” অমার্জনীয় অপরাধের মামলার শুনানীর আগমুহূর্তে হাসিমুখে ভক্তদের উদ্দ্যেশ্যে হাত নেড়ে আদালতে ঢুকেছিলেন মাইকেল জ্যাকসন, বেরিয়ে এসেছিলেন নির্দোষ প্রমাণিত হয়ে। মাইকেল জ্যাকসনের ওয়ার্ল্ড ট্যুর কনসার্টের ভিডিওগুলো দেখলে বুঝা যাবে ভক্তরা কি পরিমাণ ক্রেজি ছিলেন তাকে একনজর দেখার জন্য। মেয়ে ভক্তরা একের পর এক উত্তেজনায় জ্ঞান হারাচ্ছে… চিৎকার করে কাঁদছে… এরকম নজির অহরহ।

ব্রিটনী স্পিয়ার্স যখন ক্যারিয়ারে খ্যাতির তুঙ্গে, তখন প্রেমিকের সাথে ছাড়াছাড়ি হয়ে যায় তার। প্রচন্ড মানসিক চাপ সহ্য করতে না পেরে উদ্ভট এক কান্ড করলেন ব্রিটনী- মাথার সমস্ত চুল ফেলে দিয়ে ন্যাড়া হয়ে গেলেন। হলিউড মিডিয়া ঘোষনা করলো পাগল হয়ে গেছেন তিনি, তার দিন শেষ। মজার ব্যাপারটা শুরু হলো তখনই… ব্রিটনীর বেশ কিছু ভক্ত ব্রিটনীকে সাপোর্ট জানানোর জন্য নিজেদের মাথা ন্যাড়া করে ফেললো, রাস্তায় এসে দাঁড়ালো। এই ব্যাপারটা ব্রিটনীকে বেশ কঠিন রকমের নাড়া দিলো। ভক্তদের ভালবেসে নিজের কঠিন সময় কাটিয়ে উঠলেন ব্রিটনী, ফিরে এলেন সুপারহিট এ্যালবাম নিয়ে। আবার রাজত্ব করলেন বিলবোর্ড টপচার্টে।

ব্রাজিলিয়ান ফুটবলার রোনালদো যখন ২০০২ বিশ্বকাপে ছেলের জন্যে ফাইনাল খেলার আগে মাথায় অদ্ভূত এক স্টাইলে চুল রেখে হাজির হলেন। আর পায় কে? সারা বিশ্বব্যাপী অসংখ্য ভক্ত বিশ্বকাপের পর ঠিক এ রকম অদ্ভুতভাবে চুল রেখে দিয়েছেন। বাংলাদেশেও অসংখ্য রোনালদো ভক্ত এই চুল নিয়ে ঘুরঘুর করেছেন বেশ কিছুদিন।

‘কুলি’ মুভির শ্যুটিং করার সময় এবডোমেনে চোট পেয়ে গুরুতর আহত হয়েছিলেন অমিতাভ বচ্চন। তিনি তখন ক্যারিয়ারের স্বর্ণযুগে, একটার পর একটা ছবি ব্লকবাস্টার হিট হচ্ছিলো। চোট এতোটাই গভীর ছিলো, ডাক্তাররা সাফ জানিয়ে দিলেন হয়তো আর কখনো ক্যামেরার সামনে দাঁড়াতে পারবেন না অমিতাভ। সমস্ত ভারতবাসী এরপর নেমেছিলো প্রার্থনায়। জয়া বচ্চন মুম্বাই-এর এক মন্দিরে যেতেন, তার সাথে সমস্ত এলাকাবাসী প্রার্থনা করতেন অমিতাভের সুস্থতার জন্য। সুস্থ হয়েই ফিরেছিলেন অমিতাভ বচ্চন… ‘কুলি’ মুভি দিয়ে কাঁপিয়ে দিয়েছেন বক্স অফিস।

একটা মজার কথা শোনা যায়- শচীন টেন্ডুলকার যখন ব্যাটিং-এ নামতেন, তার কাঁধে থাকতো একশ কোটি মানুষের চাপ। শচীনের ক্রিজে আসার সাথে সাথে একশ কোটি মানুষ প্রার্থনায় বসতো। শচীন কখনো নিরাশ করেছেন, কখনো দিয়েছেন প্রত্যাশার মূল্য… ভক্তরা কখনো তাকে ছেড়ে যাননি।

আমাদের ছোট্ট দেশে সালমান শাহ নামের একজন নক্ষত্র ছিলেন। আমাদের চিরায়িত দূর্ভাগ্যের মতো আরো একটি দূর্ভাগ্যের কারণে সালমান আমাদের ছেড়ে চলে যান। সালমানের মৃত্যু সংবাদ শুনেই আত্মহত্যা করেছিলেন বেশ ক’জন ভক্ত।

শাহরুখ খানের একটি চলচ্চিত্র রিলিজ হলো কয়েকদিন আগে- নাম ‘ফ্যান’। এই ফ্যান মুভির পোস্টার বানানোর জন্যে তাঁর ভক্তরা নিজেদের রুম থেকে, ডায়েরী থেকে, দরজা থেকে খুলে এনে সংগ্রহের পোস্টার জমা দিয়েছিলেন যশরাজ ফিল্মসের কাছে। আর শাহরুখ ভক্তদের দেওয়া সেই লাখখানেক পোস্টার জড়ো করে বানানো হয়েছিলো এই নতুন ছবির পোস্টার।

সাকিব আল হাসানের ফেসবুক পেইজের পোস্টে করা কিছু অশালীন মন্তব্য। (ছবিটি ফেসবুকের ট্রল ক্রিকেট বাংলাদেশ গ্রুপ থেকে সংগৃহিত)

‘ভক্ত’ জিনিসটা এমন, এই শব্দটার সাথেই একটা পাগলামি জুড়ে আছে। ভক্তরা তাঁদের সুপারস্টারের জন্যে জীবন উৎসর্গ করে দেন। ভক্তরা না থাকলে সৃষ্টি হতো না কোন সুপারস্টারের, দেখা হতো না চারপাশে ভক্তদের এসব অদ্ভুত কান্ডগুলো। আমাদের দেশে এখন সালমান শাহ’র মতো জ্বলজ্বলে তারকা নেই আর, প্রায় ধ্বংসের মুখেই চলে গিয়েছিলো আমাদের চলচ্চিত্র।

তবে আমাদের ক্রিকেটার’রা আছেন। আসুন, আমরা ফেসবুকে সাকিবের নামে অপপ্রচারগুলোকে ছড়াতে না দিয়ে বরং তাকে চাপমুক্তভাবে খেলার সুযোগ করে দিই। তামিম একটা ম্যাচে ভালো করতে না পারলে তাকে নিয়ে ঠাট্টা না করে বিশ্বাস রাখি, পরের ম্যাচে সেই একই উদ্দ্যমে সাহস যোগাই। নাসির-মুশফিক-সৌম্যদের পোস্টার থাকুক আমাদের দেয়ালে-দেয়ালে। একের পর এক ইনজুরিকে জয় করে দেশের ক্রিকেটকে ভালোবেসে ফিরে আসা ক্যাপ্টেন মাশরাফি টস করতে নামলে একসাথে টসে নামুক ষোল কোটি বাঙ্গালী।

ভারতীয়দের মতো উন্মাদ ক্রিকেট ফ্যানদের দেশের ক্রিকেটার হরভজন সিং-এর স্ত্রী একজন আইটেম গার্ল, বিরাট কোহলীর গার্লফ্রেন্ড আনুশকা, হার্ডিক পান্ডিয়া ডেট করছেন একজন অভিনেত্রীকে, যুবরাজ সিংও বিয়ে করেছেন নায়িকাকে। পাকিস্তানী শোয়েব মালিক বিয়ে করেছেন চিরশত্রু দেশ ভারতের সানিয়া মির্জাকে। সেসব দেশের মানুষ ম্যাচিউরিটির পরিচয় দিতে পারলে আমরা কেনো এতো পঁচে গেলাম? সাকিবের স্ত্রী তার ডিগনিটি, তার ভালবাসার, মর্যাদার জায়গা। একজন খেলোয়াড় কিংবা তার স্ত্রীকে নিয়ে বাজে মন্তব্য ফেসবুকে প্রকাশ করার আগে ভাবুন, ফ্যানপেজটাতে লাইক আছে পুরো ক্রিকেট বিশ্বের মানুষের! ওরা আমাদের নোংরামী দেখে। দেখে থুথু ফেলে। আমাদের ক্রিকেটাররা ঘাম ঝরিয়ে যে গৌরব নিয়ে আসছেন দেশের জন্য, আমাদের এক-দু’টো ফেসবুক কমেন্টেই সে গৌরব ভেসে যায়।

আমরাই হতে পারি একদিন বিশ্বকাপজয়ী দেশ… আমরা পারবো! সেদিনের জন্য আমরা ফ্যানরাও একটু নিজেদের তৈরী করবো কি?

Most Popular

আর দশটি নিউজপোর্টালের মত যাচ্ছেতাই জগাখিচুড়ি না, "নিয়ন আলোয়" আমাদের সবার লেখা নিয়ে আমাদের জন্যই প্রকাশিত হওয়া বাংলা ভাষায় প্রথম পূর্ণাঙ্গ অনলাইন ম্যাগাজিন।

আজকের আলোচিত

Copyright © 2016 Neon Aloy Magazine

To Top