টুকিটাকি

গেম অফ থ্রোন্সের জানা-অজানা!

game of thrones গেম অফ থ্রোন্স নিয়ন আলোয় neon aloy

একটি সুপারহিট টিভি সিরিজ বানাতে যা যা দরকার পড়ে, তার কি নেই গেম অফ থ্রোন্সে? পলিটিক্স-রোমান্স-ড্রামা-থ্রিল-যৌনতা-ধুন্ধুমার অ্যাকশন-যুদ্ধ-আবেগ-জাদুটোনা, এমনকি ড্রাগনও! আর এসবের জোরে গেম অফ থ্রোন্স হয়ে উঠেছে বর্তমান সময়ের সবচেয়ে আকাংক্ষিত টিভি সিরিজে। প্রতি সিজনে ১০টি পর্ব রিলিজ হয়, আর সে দশটি পর্ব গোগ্রাসে গিলে বছরের বাকি সময়টা বুভুক্ষের মত অপেক্ষা করেন সিরিজটির ফ্যানরা। আর সিরিজটির সম্মোহনী ক্ষমতা এমনই যে, কেউ এর কয়েকটি পর্ব দেখার পর বাকিটুকু না দেখে শান্তিতে থাকতে পেরেছে- এমন নজির পাওয়া ভার।

লেখক জর্জ আর আর মার্টিনের A Song of Ice nd Fire বই অবলম্বনে নির্মিত গেম অফ থ্রোন্স সিরিজটি গল্পের মূল কাঠামো মেনে চললেও বেশ কিছু ছোট-বড় পরিবর্তন দেখা যায় অহরহই। তাই যারা জর্জ আর আর মার্টিনের বইগুলো পড়েছেন, তারাও বেশ আগ্রহ নিয়ে বসে থাকেন সিরিজটি দেখার জন্য। আর যেহেতু গল্পের পুরো সিরিজটি এখনো প্রকাশিত হয়নি, তাই প্রতিটি সিজন নিয়ে দর্শকদের আগ্রহ থাকে আকাশচুম্বী। সেই সাথে পরের সিজন শুরু হওয়ার আগে পর্যন্ত বের হতে থাকে উদ্ভট সব ফ্যান থিওরি। বলাই বাহুল্য, সেসব ফ্যান থিওরির বেশিরভাগই মার খেয়ে যায় জর্জ আর আর মার্টিনের কল্পনাশক্তির কাছে। আর গল্পটির ধারাই এমন যে, যেসব চরিত্রই দর্শকপ্রিয়তা পায়, তার বেশিরভাগই মারা যায় হুট করে। তাই বলা যায়, সিরিজের কাহিনীর প্রতি যত না আগ্রহ, তার থেকেও বেশি উৎকন্ঠা নিয়ে দর্শকরা বসে থাকেন প্রিয় চরিত্রগুলোর পরিণতি দেখার জন্য!

গেম অফ থ্রোন্স নিয়ে আজকের এই আর্টিকেলটি আসলে উদ্ভট কোন ফ্যান থিওরি নিয়ে না। বরং বিশাল পরিসরের এই সিরিজটির মেকিং এবং প্রোডাকশনের অদ্ভুত সব ফ্যাক্ট নিয়ে সাজানো। এখানে সবগুলো ফ্যাক্টই ইন্টারনেট থেকে সংগৃহিত।

১. গেম অফ থ্রোন্সের ১৪ জন অভিনেতা হ্যারি পটার মুভি সিরিজেও অভিনয় করেছেন!

game of thrones গেম অফ থ্রোন্স নিয়ন আলোয় neon aloy

চেনা যায়?

২. দানেরিস তার বিয়ের অনুষ্ঠানে যে ঘোড়ার হৃৎপিন্ড খেয়েছিলো, সেটি ৩ পাউন্ড ওজনের গামি জেলো দিয়ে বানানো ছিল।

game of thrones গেম অফ থ্রোন্স নিয়ন আলোয় neon aloy

ডোথরাকি বিয়ের সেই দৃশ্য!

৩. ট্যালিসা স্টার্কের (রব স্টার্কের স্ত্রী) চরিত্রে অভিনয় করেছেন বিখ্যাত অভিনেতা চার্লি চাপলিনের নাতনি উনা চাপলিন।

game of thrones গেম অফ থ্রোন্স নিয়ন আলোয় neon aloy

পর্ব শেষের ক্রেডিট না দেখলে কিন্তু এই তথ্য অজানা থেকে যেতো!

৪. শুনতে একই রকম মনে হলেও হডোর চরিত্রটি বিভিন্ন অর্থ বুঝাতে সর্বমোট ৭০ ভাবে “হডোর” উচ্চারণ করেছেন!

game of thrones গেম অফ থ্রোন্স নিয়ন আলোয় neon aloy

পার্শ্বচরিত্রগুলোর মধ্যে সম্ভবত হডোরই সবচেয়ে বেশি কাঁদিয়েছে দর্শকদের।

৫. আয়রন থ্রোন সিংহাসনটি তৈরি করতে মোট দুই মাস সময় লেগেছিল।

game of thrones গেম অফ থ্রোন্স নিয়ন আলোয় neon aloy

এই অভিশপ্ত সিংহাসনের জন্যই যত রক্তপাত!

৬. গেম অফ থ্রোন্সের প্রতিটি পর্ব নির্মাণের পিছনে গড়ে বাজেট বরাদ্দ থাকে ৬ মিলিয়ন ডলার!

game of thrones গেম অফ থ্রোন্স নিয়ন আলোয় neon aloy

শুটিং এর সেটে “জেইমি ল্যানিস্টার” নিকোলাই কস্টার-ওয়াল্ডৌ

৭. অর্থহীন শোনালেও ডোথরাকি ভাষা কিন্তু বাস্তব! এই টিভি সিরিজটির জন্য ডেভিড জে পিটারসনের বানানো ১২৮ পৃষ্ঠার একটি গাইডলাইন পড়ে আপনিও ডোথরাকি ভাষা শিখতে পারেন।

game of thrones গেম অফ থ্রোন্স নিয়ন আলোয় neon aloy

ভ্যালিরিয়ান ভাষারও কিন্তু গ্রামার লেখা হয়েছে এই টিভি সিরিজ নির্মাণের জন্য!

৮. সিরিজটির নির্মাতারা প্রায়ই ভুয়া স্ক্রিপ্ট সরবরাহ করে অভিনেতাদের বিভ্রান্ত করতেন। সানসা চরিত্রে রুপদানকারী অভিনেত্রী সোফি টার্নারকে তিন সপ্তাহ একটি ভুয়া স্ক্রিপ্ট দিয়ে ভয় দেখানো হয়েছিলো যে তার চরিত্রটি মারা যাবে।

game of thrones গেম অফ থ্রোন্স নিয়ন আলোয় neon aloy

এই নিষ্পাপ চেহারার মেয়েটির সাথে একজন কিভাবে এত নিষ্ঠুর ঠাট্টা করে?

৯. এয়মন টারগারিয়ান চরিত্রে অভিনয় করা অভিনেতা পিটার ভন বাস্তব জীবনেও অন্ধ।

game of thrones গেম অফ থ্রোন্স নিয়ন আলোয় neon aloy

বিজ্ঞ এয়মনের চরিত্রে বর্ষীয়ান অভিনেতা পিটার ভন।

১০. সানসা স্টার্কের নেকড়েটিকে বাস্তবজীবনে পোষ মানিয়েছেন অভিনেত্রী সোফি টার্নার।

game of thrones গেম অফ থ্রোন্স নিয়ন আলোয় neon aloy

সানসা স্টার্কের সাথে নেকড়ে “লেডি”

১১. গেম অফ থ্রোন্সের প্রতি পর্বে গড়ে ৪.৫টি চরিত্র মারা যায়। এর মধ্যে প্রথম চার পর্বেই মারা গিয়েছে ১৩৩টি চরিত্র!

game of thrones গেম অফ থ্রোন্স নিয়ন আলোয় neon aloy

প্রথম সিজনের যে দৃশ্য স্তব্ধ কর দিয়েছিলো লাখো দর্শককে!

১২. “দ্যা জায়ান্ট” নিল ফিঙ্গলটন ব্রিটেনের সবচেয়ে লম্বা ব্যক্তি।

game of thrones গেম অফ থ্রোন্স নিয়ন আলোয় neon aloy

বাস্তব জীবনে ” দ্যা জায়ান্ট”!

১৩. “দ্যা মাউন্টেইন” হ্যাফর জুলিয়াস বিয়র্নসন পৃথিবীর তৃতীয় শক্তিশালী মানুষ। সম্প্রতি কিছু গবেষক দাবী করেছেন, তাত্ত্বিকভাবে এই লোক চাইলেই তার হাত দিয়ে মানুষের মাথার খুলি ভাংতে সক্ষম!

game of thrones গেম অফ থ্রোন্স নিয়ন আলোয় neon aloy

আক্ষরিক অর্থেই পাহাড়ের মত বিশাল লোক এই বিয়র্নসন!

১৪. জাহাজের দৃশ্যগুলো শুট করার জন্য প্রোডাকশন টিমের একটি মাত্র জাহাজ আছে, বাকি সবই স্পেশাল ইফেক্টের খেলা!

game of thrones গেম অফ থ্রোন্স নিয়ন আলোয় neon aloy

কিংস ল্যান্ডিং এর পথে দানেরিস টারগারিয়ানের নৌবহর।

১৫. মেলিসান্দ্রে চরিত্রের অভিনেত্রীর সার্সেই ল্যানিস্টারের চরিত্রে অভিনয় করার কথা ছিল, আর রামসে বোল্টনের অভিনেতা পাওয়ার কথা ছিলো জন স্নো’র চরিত্র!

game of thrones গেম অফ থ্রোন্স নিয়ন আলোয় neon aloy

কেমন হতো যদি এই দুই অভিনেতার চরিত্র অদলবদল হতো?

ভালভাবে মনোযোগ দিয়ে দেখলে হয়তো আপনার চোখেও হয়তো ধরা দিতে পারে এরকম আরো অনেক বিচিত্র তথ্য!

তথ্যসূত্রঃ সারকাজম

Most Popular

To Top