গল্প-সল্প

বইমেলা, ও পাঁচটি না বলা অণুগল্পঃ আহমেদ তাহমিদ

বইমেলা ও পাঁচটি অণুগল্প নিয়ন আলোয় neon aloy
বইমেলা_১

বেসরকারী চাকরী, মাস তিনেক বেতন পাচ্ছে না; তবুও ছেলেটা অফিস থেকে প্রায় প্রতিদিন বাদুড়ঝোলা হয়ে বইমেলায় যায়, নতুন বইয়ের গন্ধ নেয়। এরপর এক কাপ বিস্বাদ সস্তা চা খেয়ে বাড়ি চলে যায়। তার দৃঢ় বিশ্বাস সামনের বইমেলা থেকে সে ইচ্ছেমতো এক গাদা বই কিনতে পারবে।

বইমেলা_২

বইমেলা উপলক্ষে বাবার কাছে থেকে হাজার দশেক টাকা নিয়েছে মেয়েটি। বইও কিনেছে অনেকগুলোই এবং সবকয়টি বইয়ের স্তুপাকৃতির ছবি তুলে ফেসবুকে পোস্টও দিয়ে দিয়েছে। হাজারো নীল লাইকের দিকে তাকিয়ে মেয়েটির সময় চলে যায় তবে সদ্য কেনা একটি বইও খুলে পড়া হয় না।

বইমেলা_৩

সদ্য ওঠা তরুণ কবি বেশ উদাস মনে টিএসসিতে বসে সিগারেট ফুঁকছে। অনলাইন আর বাস্তবের মানুষগুলো এক নয়। অনলাইনে তার বই প্রকাশের খবরে মানুষের আগ্রহের অভাব নেই, আর পুরো বইমেলায় তার একটা বইও বিকোলো না! রদ্দির মতো জমিয়ে রাখতে হবে এখন বইগুলো, যদি সামনের বইমেলায় আরেকটু খ্যাতির সুবাদে কিছু বই বিক্রি করা যায়!

বইমেলা_৪

প্রবীণ প্রসিদ্ধ লেখক বসে আছেন দেশের অতীব প্রাচীন এবং বিখ্যাত এক প্রকাশনা সংস্থার স্টলে। অসংখ্য ভক্ত এসে তাঁর সদ্য প্রকাশিত বই কিনে অটোগ্রাফ নিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু পঁচিশ বছর আগে যেই মানুষটি বলে গিয়েছিলো আলতো ভাবে ‘সামনের বইমেলায় তোমার লেখা বইয়ে তোমার অটোগ্রাফ নিতে চাই কিন্তু!’, সে কেনো জানি এখনো দেখা দেয় নি।

বইমেলা_৫

বিগত দশ দিনের টিফিনের পয়সা বাঁচিয়ে অনেক প্রত্যাশিত বইটি কিনলো ছোট্ট ছেলেটি। সে রক্ষণশীল বাসা থেকে ‘বাইরের বই’ কেনার জন্য কোন পয়সা পায় না, এমনকি বইমেলায়ও স্কুল পালিয়ে এসেছে। যখন প্রত্যাশিত বইয়ে প্রিয় লেখকের অটোগ্রাফ পেলো, তখন তার মনে হলো, জীবনে অনেক দূরে এগিয়ে যেতে হবে। আরো বই পড়তে হবে……

Most Popular

To Top