নাগরিক কথা

আমার GRE অভিজ্ঞতা

GRE

আমি GRE দিয়েছি মার্চ মাসে। তারপর অনেকেই মাঝেমধ্যে জিজ্ঞেস করে কিভাবে প্রিপারেশন নেয়া উচিত। বারবার এক কথা বলতে বলতে হাঁপিয়ে গিয়েছি। তাই এই নোট।

আমি পার্সোনালী মনে করি There is no standard guideline. একেকজনের ক্ষেত্রে ব্যাপারটা একেক রকম হয়। সেজন্য আমি কিছু খুঁটিনাটি ব্যাপারসহ আমার অভিজ্ঞতা শেয়ার করছি।

তার আগে আমি ধন্যবাদ দিতে চাচ্ছি ফেসবুক গ্রুপ Higher Study Abroad – Bangladesh Chapter এবং New GRE কে, সামহোয়্যারইন ব্লগের সব ব্লগারদের যারা জিআরই নিয়ে লিখেছেন সেখানে। আমার নিজের পরীক্ষার জন্য জ্বালাতন করেছি সজীব স্যার, সুমন স্যার, বিকাশ স্যার, শেহাব ভাই, তিশাদ ভাই, বন্ধু আনোয়ারকে। সবাইকে থ্যাংকস। ও আচ্ছা, একজন বাদ পড়ে গেছেন। তিনি হচ্ছেন Google (অনেক হেল্প করেছে)।

আমি ধরে নিলাম যারা পড়ছেন তারা GRE এক্সাম এর Structure সম্পর্কে জানেন। না জানলে এখানে দেখতে পারেন- যুক্তরাষ্ট্রে ফান্ডিং নিয়ে পড়তে আসুন- ২ (GRE)। গুগল করলেও পাবেন।

আর যারা GRE কেন লাগে এটা জানেন না, Please ask Google, not me. please… 🙁

ডঃ রাগিব হাসান এর এই ব্লগ গুলি পড়লেও চলবে। এটা একটা সিরিজ।

Higherstudy Abroad এর সাইট, ফেসবুক গ্রুপও অনেক কাজের।

 

১। কতদিন পড়তে হবে?

এটা অনেককিছুর উপর নির্ভর করে। আমার ধারণা GRE প্রিপারেশনে সবচাইতে ইম্পরট্যান্ট ব্যাপার হচ্ছে আপনি স্কুলে যখন পড়াশোনা করতেন, তখন থেকে এখন পর্যন্ত আপনার এনালাইটিক্যাল স্কিল কেমন গ্রো করেছে সেটা। সুতরাং আপনার প্রিপারেশন আসলে অনেক আগেই শুরু হয়ে গেছে। এখন শুধু দরকার প্র্যাকটিস। তবে প্র্যাকটিসের জন্য রাফলি ১ থেকে ৪ মাস সময় হলে ভালো। প্র্যাকটিসে মিলায় বস্তু, তর্কে বহুদূর। যত প্র্যাকটিস করবেন, তত ভালো। আর পুরো পরীক্ষা সম্পর্কে আইডিয়া জন্মাতেই কিছুটা সময় লাগে। তারপরেও লাক বলতে একটা ব্যাপার আছে, ওভারঅল স্মার্টনেস ইন স্কিলস বলতে একটা ব্যাপার আছে। কিন্তু এগুলো নিয়ে চিন্তা করে লাভ নেই। এগুলি হুট করে সম্ভব না আয়ত্ত করা। সুতরাং, যা আছে তাই নিয়ে স্টার্ট করতে হবে। আপনি আগে পরীক্ষার স্ট্রাকচার সম্পর্কে ধারণা নিয়ে তারপরে পড়া শুরু করলে নিজেই বুঝবেন কতদিন লাগবে। আগে সেলফ এনালাইসিস করাটা জরুরী। ব্যক্তিভেদে প্রস্তুতিও ভিন্ন হয়। দুর্ভাগ্যবশত, আমি আমার নিজের ক্ষেত্রে এই কাজটা করেছি পরীক্ষার মাত্র ১৫ দিন আগে। যাই হোক খুব একটা ঝামেলা হয়নি।

 

২। কি পড়িবো? কেনই বা পড়িবো?

আমি নিজে যা যা বই/ ম্যাটেরিয়ালস কিনেছি/ ডাউনলোড করেছি সেটার একটা লিস্ট দিচ্ছি আর সেটা আমার কতটা কাজে এসেছে সেটার ও একটা স্কোর দিচ্ছি আউট অফ ফাইভ।

  •  Word Power Made Easy by Norman Lewis.(5/5)
  • Princeton Cracking GRE. (5/5)
  • Manhattan 5 lb. (5/5)
  • Barrons GRE. (0.5/5)
  • Nova Math Bible. (0.5/5)
  • GRE Official Guide by ETS. (2/5)
  • Manhattan GRE Books – ReadingComprehension Section (5/5)
  • Google Search Engine and Facebook Groups (10/5)

Vocabulary-এর জন্য (তেমন কাজে আসে নাই)

  • WordPower Made Easy
  • Barrons 333 High Frequency Words
  • Kaplans 400 Word
  • Princeton Hit Parade 350 + 100
  • Manhattan 800 words
  • Word Smart (~1600 words)

 

২.১। ভোকাবুলারী কতখানি শিখিবো? হাজার-হাজার ওয়ার্ড কিভাবে মুখস্ত করবো?

আমার সবচাইতে বড় সমস্যা এটাই ছিল প্রথমে। চোখবন্ধ করে মুখস্ত করা শুরু করেছিলাম ওয়ার্ডলিস্ট। আমি মুখস্তে বিরাট লেভেলের দুর্বল। কিন্তু জীবনে কিছু সময় আসে যখন দাঁতে দাঁত চেপে সহ্য করা ছাড়া কিছু করার থাকেনা। আমারও সেইম অবস্থা ছিল।

পরীক্ষার প্রায় ১৫ দিন আগে হুট করে খেয়াল করলামযে ফিল ইন দ্য গ্যাপস কোশ্চেনগুলোর চাইতে রিডিং কম্প্রিহেনশনে মার্ক্স তুলতে পারার প্রোবাবিলিটি বেশী। তখন ডিসিশন নিলাম যে আমি সময় নিয়ে রিডিং কম্প্রিহেনশন এর সবগুলা এন্সার রাইট করার চেষ্টা করবো আর ফিল ইন দ্যা গ্যাপ্স গুলায় তেমন সময় দেবোনা। আমার অবশ্য ভারবালে ১৫০ এর মতই টার্গেট ছিল। সুতরাং ইকুয়েশন দাঁড়ালো আমি RC (ReadingComprehension)-এ ২০ টার মধ্যে ১৭-১৮ টার মত কারেক্ট করতে পারলে ফিল ইন দ্যা গ্যাপ্সগুলায় ৩-৪ পেলেই হবে। সুতরাং মাথা থেকে ওয়ার্ড এর চিন্তা বাদ দিলাম। সত্যি কথা বলতে, মূল পরীক্ষায় আমি সবকিছু স্কিপ করে RC গুলো আগে শুরু করেছিলাম। ৩০ মিনিটের মধ্যে ২৫+ মিনিট সেগুলো বারবার পড়ে এন্সার ফিক্স করলাম। তারপরে SE ২-৩টা আর সিঙ্গেল গ্যাপ এর ২-১টা আনসার করলাম। রিস্ক কাজে লেগেছিল। ভারবালে ১৫০+ চলে আসছে। পারফেকশন রেইট খারাপ হয়নাই। আমি অনেক কোশ্চেন ছেড়ে টোটাল ৪০টার মধ্যে এরাউন্ড ২৩-২৫টার মত এন্সার করলাম। কারেক্ট হল ২১টা।

আসল কাহিনী হল আমি RC আর Fill In The Gaps কে দুইটা আলাদা নৌকা মনে করে এক নৌকায় সব সময় পা রেখেছি। পরে অন্য নৌকায় অল্প একটু নজর দিলাম।

যারা জানতে চান RC তে বিশ্বকাপ জেতার রহস্য তাদেরকে বলি আমি RC এর জন্য যা পড়েছিলাম।

  • Manhattan এর RC এর পার্ট আর Princeton Cracking GRE থেকে Tips and ট্রিক্স শিখেছি (Important!!! ) ।
  • Codecoax.com নামে একটা সাইট ছিল(এখন বন্ধ)।সেখানে ২২৫টার মত RC ছিল। সবগুলি করেছি।
  • Manhattan 5lb এর অর্ধেকের মত RC করেছি। পরে সময় পাইনাই বাকীগুলা করার।

Vocabularay শিখেছিলাম ঠিকই কিন্তু শেষ পর্যন্ত কাজে লাগাই নাই।

এখানে একটা ব্যাপার আছে। আমি ১২০০ এর মত ওয়ার্ড শিখেছিলাম। কাজে লাগাইনি। আমার এক বন্ধু ৫০০০ এর উপর শিখেছিল। কিন্তু রেজাল্ট বাজে আসছে। সুতরাং খুব একটা ভরসা করে লাভ নাই। ইংলিশে ওভারঅল রিডিং স্কিল ইম্প্রুভ করার দরকার বেশি। Vocabulary এর ইম্পরট্যান্স কেন আমি কমাচ্ছি বলি।

আমার রিডিং স্কিল খুব একটা খারাপ না। আমি সিঙ্গেল গ্যাপ এর একটা কোশ্চেন পেয়েছিলাম। টোটাল ৬টা শব্দ আর একটা গ্যাপ। আমি ৩-৪ বার পড়েও বুঝিনাই আসলে সেটার মানে কি। বাক্যের ভাব ধরতে পারলে তখন উত্তর ঠিক করা যায়। আমি বাক্যই বুঝছিলাম না। ৫টা অপশনের মধ্যে ৫টাই পরিচিত Vocabulary হলে লাভ কি?

তবে একটা বই মাস্ট পড়া উচিত বলে আমি মনে করি। Word Power Made Easy!!! একসাথে মজা করে Vocabulary শেখা যাবে, Reading skill বাড়াতে হেল্প করবে, কিছু ইন্টারেস্টিং তথ্যও জানা যাবে।

 

২.২। অঙ্ক করিবো কোথা হইতে?

আমি Manhattan 5lb পুরাটা শেষ করেছি। প্রিপারেশন নেয়ার সময় Lumosity.org (ছোটভাই আদনানকে ধন্যবাদ। এই সাইট ওর সাজেশন) নামের একটা সাইটে ব্রেইনকে তরতাজা করার জন্য পাজল টাইপ গেইম খেলতাম।

ফেসবুকে GRE এর গ্রুপে কোয়ান্ট প্রব্লেম দেখামাত্রই ঝাঁপিয়ে পড়তাম। খুব কনফিডেন্স ছিলো কোয়ান্ট নিয়ে। ETS এর ২টা পাওয়ারপ্রেপেই কোয়ান্টে ১৭০ ছিলো। kaplan এর ২টা প্র্যাকটিস টেস্ট দিয়েছিলাম। একটায় ১৭০ আরেকটায় ১৬৬। পরে অবশ্য একটা ট্র্যাজেডি হয়েছিলো। সে ব্যাপারে পরে আসছি।

Quant এর মূলমন্ত্র হল একটাই। অনেক অনেক অনেক Practise। যেখানে খুশী মন চাইলেই দুই একটা ঘাড়তেরা প্রব্লেম নিয়ে সল্ভ করা শুরু করতাম আমি। মেইন ব্যাপার অনেক কিছু পড়া না। মুল ব্যাপার হল আপনার ব্রেইনকে তৈরি করতে হবে যে কোন সময়ই Problem Solving এর জন্য। ২-১ মাসের জন্য জীবনের সব চিন্তা ভাবনা GRE এর জন্য বরাদ্দ করাই মনে হয় ভাল।

 

২.৩। Analytical Writing এ কার গুনের বর্ণনা করিবো? কোথায়ই বা শিখিবো?

আমি আসলে এই পার্টের জন্য টোটাল ৪ ঘণ্টার মত সময় ব্যয় করেছি। Princeton Cracking GRE তে এই পার্টের জন্য Tricks শিখেছি। তারপর একটা Issue Essay লিখে Afsana Kabir Shawan আপুকে দেখিয়েছি। উনি বলেছেন চলবে। আমি ও ভাবলাম খাইসি তরে।

৩ পেয়ে বুঝলাম সিস্টেম মত খাইতে পারিনাই। তাহলে আরেকটু বেশি পেতাম। সুতরাং এই পার্টে আর একটু বেশি পড়তে হবে।

 

৩। GRE পরীক্ষার জন্য টিপস

একটাই টিপস দেবো আমার অভিজ্ঞতার আলোকে। সেটা হল মাথা ঠাণ্ডা রাখতে হবে। সাথে চকলেট নিয়ে যাবেন। ১০ মিনিটের ব্রেকে মুখে চকলেট ঢুকিয়ে দিতে পারলে ভালো লাগবে। টানা ৫ ঘণ্টা এক জায়গায় বসে থাকা … ভাইরে, সে বড়ই প্যাথেটিক ব্যবস্থা।

আমি এই কেসেই মারাত্মকভাবে সাফার করেছি। আমার Nausea এর ভয়ানক সমস্যা আছে। Physical অথবা Mental stress এ পড়লে আমার Vomiting Tendency দেখা দেয়। ম্যাক্সিমাম সময়ই বমি চলে আসে। যাইহোক, এক্সামের শেষ সেকশন শুরু হওয়া মাত্রই আমার বমি চলে আসে। ওয়াশরুমে গেলাম। অবস্থা ভয়াবহ। এসে দেখি ৩৫ মিনিটের মধ্যে আর ২১ মিনিটের মত আছে। এই সেকশনের প্রবলেমগুলোও lenghty ছিলো। ১১টা এন্সার করতে করতে সময় শেষ। ধরেই নিলাম আবার দিতে হবে। রেজাল্ট শো করলো। দেখলাম সেইরকম পারফেকশন।

কোয়ান্টে ১৬০ চলে আসছে। মানে ৩১ টা এন্সার করেছিলাম।৩০ টাই হয়ে গেছে।

এই অভিজ্ঞতা থেকে কি শিখলেন?

Be Cool. Be Very Very COOL. মাথা গরম হইলেই শেষ। প্রেশার নেয়া যাবেনা একদম।

আবার দেয়ার চিন্তা বাদ দিলাম কারণ আমার পরীক্ষা দিতে ব্যাপক পেইন লাগে। আর সেটা যদি হয় GRE, তাহলে আর কথা নাই। ৫ টা ঘণ্টা, খবর আছে।

* একান্তই ব্যাক্তিগত অভিজ্ঞতা। আগেই বলেছি person to person প্রিপারেশনটা আলাদা।

* Barron GRE , Nova কিনার পরে আর পড়া হয়নি।

 

লেখকঃ সুদীপ্ত কর

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অনার্স শেষ করে বাংলাদেশের প্রথম সার্চ ইঞ্জিন “পিপীলিকা”-তে রিসার্চার ও ডেভেলপার হিসেবে কর্মরত ছিলেন। বর্তমানে ইউনিভার্সিটি অফ হিউস্টনে কম্পিউটার সায়েন্সের উপর পিএইচডি করছেন ও রিসার্চ এসিস্ট্যান্ট হিসেবে কাজ করছেন।

Most Popular

আর দশটি নিউজপোর্টালের মত যাচ্ছেতাই জগাখিচুড়ি না, "নিয়ন আলোয়" আমাদের সবার লেখা নিয়ে আমাদের জন্যই প্রকাশিত হওয়া বাংলা ভাষায় প্রথম পূর্ণাঙ্গ অনলাইন ম্যাগাজিন।

আজকের আলোচিত

Copyright © 2016 Neon Aloy Magazine

To Top